শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনাকালে হিমায়িত খাবার নিয়ে শঙ্কা নেই : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

খাবার বা প্যাকেটজাত হিমায়িত খাবার থেকে মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস ছড়ানোর নজির নেই বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এ ব্যাপারে আতঙ্কিত না হতে সংস্থার পক্ষ থেকে বিশ্ববাসীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। আমদানি করা প্যাকেটজাত মুরগীর মাংস ও চিংড়িতে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে বলে চীনের দাবির প্রেক্ষাপটে বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) এমন বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বলা হয়েছে, রান্না করার পর করোনাভাইরাস মরে যায়। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি’র প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

জিনফাদি সামুদ্রিক মাছের বাজার থেকে নতুন করে বেইজিংয়ে করোনা সংক্রমণের খবর আসার পর গত জুন থেকে আমদানিকৃত খাদ্যপণ্যে করোনা পরীক্ষা চালাচ্ছে চীন। সম্প্রতি, ব্রাজিল থেকে হিমায়িত মুরগীর মাংস আমদানি করে দক্ষিণ চীনের শহর শেনজেন। লোকাল ডিজিজ কন্ট্রোল সেন্টার রুটিন স্ক্রিনিংয়ের জন্য চিকেন উইংসের স্যাম্পেল নেয়। মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) চীন দাবি করে, সেগুলো পরীক্ষার পর রিপোর্টে করোনা পজিটিভ এসেছে।বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) চীনের আনহুই প্রদেশের উহু শহরের মেয়র জানান, ইকুয়েডর থেকে আমদানিকৃত ফ্রোজেন চিংড়িতেও করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। এমন অবস্থায় খাবার বা প্যাকেটজাত খাবার থেকে মানুষের শরীরে করোনা ছড়ায় কিনা তা নিয়ে উৎকণ্ঠা তৈরি হয়। তবে এ ধরনের আশঙ্কার কথা সম্পূর্ণ উড়িয়ে দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বৃহস্পতিবার জেনেভায় অনুষ্ঠিত এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি কর্মসূচিবিষয়ক প্রধান মাইক রায়ান বলেন, ‘মহামারিতে ইতোমধ্যে মানুষ যথেষ্ট আতঙ্কিত হয়ে আছে। আর নতুন করে আতঙ্ক ছড়ানোর দরকার নেই। খাবার খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। খাবার অথবা খাবারের প্যাকেট নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোভিড টেকনিক্যাল হেড মারিয়া ভান কেরখোভে বলেন, এরকম হাজার হাজার প্যাকেট পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। ১০ টিরও কম ক্ষেত্রে রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তাই খাবার, খাবারের প্যাকেট, ডেলিভারি করা খাবার থেকে করোনা ছড়ায় না বলেই আশ্বস্ত করেছেন তিনি। মারিয়া আরও বলেন, এখনও পর্যন্ত এরকম কোনও উদাহরণ নেই যে খাবারে ভাইরাস থাকলে, সেখান থেকে কেউ আক্রান্ত হয়েছেন। যে কোনও জিনিস রান্না করলে অন্যান্য ভাইরাসের মত করোনা ভাইরাসও মরে যায়। খাবার ডেলিভারি দেওয়ায় সংক্রমণ ছড়িয়েছে, এমন উদাহরণও প্রায় নেই বললেই চলে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »

Translate »