বৃহঃস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১

সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ৮ জন রিমান্ডে

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ এলাকার হাসেম ফুডস অ্যান্ড বেভারেজে (সেজান জুসের কারখানা) অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কারখানার মালিক আবুল হাসেম ও তার ছেলে সজিবসহ ৮ জনের চারদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শনিবার বিকেলে শুনানি শেষে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খানমের আদালত এ আদেশ দেন। কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আসামিদের বিরুদ্ধে ৩০২, ৩২৬, ৩২৫, ৩২৩, ৩২৪, ৩০৭ ধারায় হত্যা এবং হত্যা প্রচেষ্টার অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, ভুলতা ফাঁড়ির ইনচার্জা নাজিমউদ্দিনের দায়ের করা মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টা ও হত্যার উদ্দেশ্যে সামান্য ও গুরুতর জখমের অভিযোগ করা হয়। ওই মামলায় গ্রেপ্তারকৃতদের ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে আদালত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ৪ জন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আবুল হাসেম, তার চার ছেলে হাসিব বিন হাসেম, তারেক ইব্রাহীম, তাওসীব ইব্রাহীম ও তানজীম ইব্রাহীম, প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহান শাহ আজাদ, হাসেম ফুড লিমিটেডের ডিজিএম মামুনুর রশিদ ও এডমিন প্রধান সালাউদ্দিন।

এছাড়া শনিবার দুপুর ২টার দিকে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত কারখানা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের আটকের বিষয়টি জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। পরিদর্শন শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এমডিসহ ৮ জনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে। ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের তদন্তে কারখানা মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। এসব বিষয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার ৮ জুলাই বিকেলে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সজীব গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হাসেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজের সেজান জুস কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে ৫২ জন শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »

Translate »